আগে চোরেরা চুরি করত এখন পুলিশ চুরি করে- কাদের সিদ্দিকী

প্রকাশ: ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৮:৫৫ : অপরাহ্ন

কান্ট্রি ডেস্ক।। টাঙ্গাইল: আগে চোরেরা চুরি করত এখন পুলিশ চুরি করে মন্তব্য করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর জনগণকে মুক্ত করে জনগণের মালিকানা ফিরিয়ে দেবো।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, ড. কামাল হোসেন একজন জাতীয় নেতা বলেই পুলিশের ঊর্ধ্বতন অফিসারগণ তাকে নিরাপত্তা দেয়ার কথা বললে তিনি জনগণকে নিরাপত্তা দিতে বলেন। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষের জোয়ার দেখে হাসিনা পাগল হয়ে গেছে, তাই হামলা-মামলা অব্যাহত রেখেছে।

বুধবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেলে টাঙ্গাইল-৮ (সখিপুর-বাসাইল) আসনে সখিপুর জেলখানা মোড় জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

কাদের সিদ্দিকী বীরোত্তম বলেছেন,পাকিস্তানের মুসলিম লীগ আ.লীগের চেয়ে বেশি শক্তিশালী ছিল, এখন তাদের কোনো অস্তিত্ব নেই, আ.লীগেরও কোনো অস্তিত্ব থাকবে না।

আ.লীগ সরকার তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারে রেখেছে, আমাকেও উপজেলা মাঠ, ডাকবাংলো মাঠ না দিয়ে পরিত্যক্ত কারাগারের মাঠে জনসভা করার অনুমতি দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মানুষকে এতো অসম্মান করা ভালো না।

তিনি বলেন, পুলিশ মুক্তিযুদ্ধের সময় যে অবদান রেখেছিল নির্বাচনকে সামনে রেখে পুলিশের আচরণে তা ম্লান হয়ে গেছে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আ.লীগ নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মেরেছে। এ নির্বাচনে আ.লীগের যে ক্ষতি হয়েছে বিগত ৫০ বছরেও এতো ক্ষতি হয়নি।

তিনি আরো বলেন, ৩০ ডিসেম্বর এ সরকারের আখেরি দিন, ভোট চুরি করা যায় কিন্তু ভোটের বন্যার ভোট চুরি করা সম্ভব না। ভোটের যে জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে ৮ শ/ ৮ হাজার লোক গ্রেপ্তার করেও এ জোয়ার ঠেকানো যাবে না।

এ আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী কাদের সিদ্দিকীর মেয়ে ব্যারিস্টার কুঁড়ি সিদ্দিকী সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দেয়ার জন্য ৩০ ডিসেম্বর উপস্থিত জনতার নিকট ধানের শীষে ভোট প্রার্থনা করেন।

উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ যুগ্ম সম্পাদক দুলাল হোসেন মাস্টারের সভাপতিত্বে জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা বিএনপি সম্পাদক নাসির উদ্দিন, পৌর বিএনপি সম্পাদক মীর আবুল হাশেম আজাদ, কেন্দ্রীয় যুব আন্দোলন আহ্বায়ক হাবিবুন্নবী সোহেল প্রমুখ।

জনসভার পূর্বে ও পরে সৌখিন মোড় এবং আদর্শ শিশু কানন স্কুলের সামনে পুলিশ কমপক্ষে ৫০ জনকে আটক করেছে বলে জানান উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সহ-সভাপতি আব্দুস সবুর।