ইউটিউবে ‘হামলাকারী’ কে এই নারী?

প্রকাশ: ৪ এপ্রিল, ২০১৮ ৬:২২ : অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ইউটিউবের সদর দফতরে গুলি চালানোর ঘটনায় যাকে সন্দেহ করা হচ্ছে সেই নারী ইউটিউবের ওপর বেশ ক্ষুব্ধ ছিলেন।একাধিক সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি বুধবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।৩৯ বছর বয়সী নাসিম আগদামকে সন্দেহভাজন হামলাকারী হিসেবে উল্লেখ করে পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় অধিকতর তদন্ত করা হচ্ছে; হামলার কারণও খুঁজে বের করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ায় অবস্থিত ইউটিউবের প্রধান কার্যালয়ে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ওই হামলার ঘটনায় তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। মৃত উদ্ধার করা হয়েছে আগদামকে।মার্কিন সংবাদ মাধ্যম বলছে, ইউটিউবে নাসিম আগদাম যে সব ভিডিও পোস্ট করতেন তা ফিল্টার করা হচ্ছিল বলে তিনি ইউটিউব কর্তৃপক্ষের ওপর ক্ষিপ্ত ছিলেন।যাদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে; তাদেরকে হামলায় অভিযুক্ত নারী চিনতেন- এমন কোনও তথ্য এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

নাসিম আগদাম দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ডিয়েগোর বাসিন্দা ছিলেন। তার একটি ইউটিউব চ্যানেল এবং একটি ওয়েবসাইট ছিল। তিনি যে সব ভিডিও পোস্ট করতেন তার মধ্যে প্রাণীর প্রতি নিষ্ঠুরতাকে তুলে ধরা হতো।

নাসিম আগদামকে বিভিন্ন জায়গায় একজন ‘ভেগান বডিবিল্ডার, শিল্পী এবং র‌্যাপ গায়ক’ বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

পুলিশ আগদামের ব্যাপারে খুব বেশি তথ্য না দিলেও স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হচ্ছে, তিনি গত বছর জানুয়ারি মাসে অভিযোগ করেন যে ইউটিউব তার ভিডিওগুলো ফিল্টার করছে। এ কারণে অপেক্ষাকৃত কম লোক তা দেখতে পারছে এবং এ থেকে তিনি যে অর্থ আয় করতেন তাও কমে যাচ্ছে।

এডলফ হিটলারকে উদ্ধৃত করে তার ওয়েবসাইটে আগদাম বলেন, একটা বড় মিথ্যেকে বার বার বলতে থাকলে এক পর্যায়ে লোকে তা বিশ্বাস করবে।

নাসিমওয়ান্ডারওয়ান নামে তার যে ইউটিউব চ্যানেলটি ছিল তাতে ৫ হাজার সাবস্ক্রাইকবার ছিল; এখন এটি মুছে দেয়া হয়েছে। মুছে দেওয়া হয়েছে এই নারীর ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টও।

আগদামের বাবা ইসমাইলও বলেছেন, ইউটিউব তার ভিডিওর জন্য অর্থ দেওয়া বন্ধ করে দেয়ায় তার মেয়ে ক্রুদ্ধ ছিল। দুইদিন ধরে নাসিম আগদাম তার ফোন ধরছিলেন না। সোমবার থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

আগদামের বাবা ইসমাইল স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, তার মেয়ে ‘ইউটিউব কোম্পানিকে ঘৃণা করতো’ বলেই হয়তো তাদের সদর দফতরে গিয়েছিল।