ঈদগাঁওতে পুলিশের বিরুদ্ধে এক মহিলার সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ১০:০০ : অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টার।।

পোকখালীতে এক কুলিং কর্ণার মালিককে অস্ত্র মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ করেছেন তাঁর স্ত্রী। ২৭ ফেব্রুয়ারী বিকেলে ঈদগাঁওতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনেন ভূক্তভোগীর স্ত্রী। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, গত কয়েকদিন আগে পুলিশ চৌফলদন্ডী নতুনমহাল ব্রিকফিল্ড সংলগ্ন কুলিং কর্ণার থেকে তার স্বামী হামিদুল হককে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্র পুলিশ অহেতুক আটক করেন। এসময় তার কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে মর্মে ব্রিকফিল্ডে কর্মরত কয়েকজন লোক থেকে একটি সাদা কাগজে সই নেয়। পরে মিথ্যা অস্ত্র মামলায় তাকে আসামী করে পুলিশ মামলা করে। তিনি বলেন, মূলত প্রতিদিনের ন্যায় তার স্বামী ঐদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুলিং কর্ণারে বসে দৈনিক হিসাব-নিকাশ করছিলেন। এসময় তার স্ত্রীও দোকানে ছিলেন। ইতোমধ্যে কয়েকজন অপরিচিত লোক উক্ত দোকানে গিয়ে সন্দেহজনক ঘুরাঘুরি করে। পরে সিএনজি যোগে পুলিশ এসে বিনা ওয়ারেন্টে তাকে গ্রেফতার করে। এসময় দোকানের টেবিলে পুলিশ একটি অস্ত্র ও গুলি রেখে পাশের্^ ইটভাটায় কর্মরত লোকজনদের ডেকে সই নেয়। উদ্ধারকৃত অস্ত্রটি পুলিশ কোথা থেকে উদ্ধার করেছে বা কোথায় পেয়েছে এ সম্পর্কে আমি ও আমার পরিবারের লোকজন কেউ কিছু জানি না। আমার স্বামী দীর্ঘ কয়েক বছর যাবত উক্ত দোকান করে সংসার চালাচ্ছেন। তিনি পোকখালী নাইক্ষ্যংদিয়ার বহুল পরিচিত সাবেক মেম্বার ছফর আলম এবং বর্তমান সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার মনজিয়ারার পুত্র। তিনি কোন অপকর্মে জড়িত নেই। পারিবারিক বিরোধ এবং মারামারির মামলা থাকলেও অন্য কোন মামলায় তার কোন ওয়ারেন্ট নেই। কে বা কারা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনে পুলিশকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে তাকে অস্ত্র মামলার আসামী করেছে। মহিলাটি দাবী করেন, তার স্বামী হামিদ অস্ত্রবাজির সাথে অতীতে জড়িত ছিলেন না, বর্তমানেও নেই। তিনি এলাকার সম্ভ্রান্ত ও অভিজাত পরিবারের সন্তান। অস্ত্র উদ্ধার নাটকের পেছনে কোন রহস্য রয়েছে এবং কে বা কারা এ জঘন্যতম ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত আমি তাদের চিহ্নিত করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। সংবাদ সম্মেলনে আটক যুবকের স্ত্রী ছাড়াও তার স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন। এক প্রশ্নের জবাবে মহিলাটি জানান, এলাকার সকলের সাথে তাদের সদ্ভাব ও সম্প্রীতি থাকা সত্ত্বেও কেন তারা এ ষড়যন্ত্রের শিকার তা কিছুতেই বুঝে উঠতে পারছেন না। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিতরা আটক তার নির্দোষ স্বামী হামিদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী, তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমূলক অস্ত্র মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার এবং ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উম্মোচনের আহবান জানান।