কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে অবৈধ কংকরের পাহাড়, দীর্ঘ যানযটের সৃষ্টি

প্রকাশ: ২৯ জুলাই, ২০১৯ ১০:৪০ : পূর্বাহ্ন

কায়সার হামিদ মানিক,উখিয়া।
কক্সবাজার-টেকনাফ আরকান সড়কে যানযট লেগে থাকার কথা নতুন নয়। রবিবার (২৮জুলাই) ধারণকৃত ছবিটি উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী উত্তর স্টেশনের কবর স্থানের পাশে সড়কে ফেলে রাখা ইটের কংকরের একটি মর্মান্তিক দৃশ্য।
সরেজমিনে দেখা যায়, সড়কে অবৈধভাবে ফেলে রাখা পাহাড়সম এই ইটের কংকরের কারণে সড়কে দীর্ঘ যানযট সৃষ্টি হয়েছে। ছোট্ট এই সড়কের পূর্ব পাশে রাখা কংকরের কারণে স্বাভাবিক যান চলাচল ব্যহত হয়েছে। সড়কের ঠিক উল্টো দিকেও (পশ্চিম পাশে) রয়েছে পুকুরসম গর্ত। যার কারণে সড়কে চিপা সৃষ্টি হয়েছে ফলে বড়বড় যানবাহনগুলো আটকে পড়ে যায়। যাত্রীরা অপেক্ষার প্রহর গুনতে গুনতে গন্তব্যে পৌঁছাতে লাগে দীর্ঘক্ষণ।
স্থানীয়রা জানায়, চকরিয়া উপজেলার আরমান নামক এক যুবকসহ কয়েকজন মিলে কাজটি করেছে। জানা যায় এই কংকর আনা হয়েছে সড়কের পার্শ্ববর্তী ভূমিতে গড়ে উঠা টয়লেট, স্যানেটারি ও খুঁটি তৈরীর কারখানার কাজে। রবিবার সকাল থেকেই এই কংকর সড়কের উপর ফেলে রাখা হয়েছে। ফলে যাত্রীবাহি গাড়িসহ পথচারীদেরও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
পথচারী বোরহান উদ্দিন বলেন,এই কেমন অমানবিক কাজ, যেখানে গাড়ি চলাচল করার জন্য জায়গা নেই এত ছোট সড়ক, সেখানে সরকারী অর্থাৎ মহাসড়কের জায়গা দখল করে অবৈধ মালামাল রাখা হয়েছে। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করছি যেন অতি দ্রুত সড়কে রাখা কংকর সরিয়ে ফেলে স্বাভাবিক যানচলাচল অব্যহত রাখে।
জায়গার মালিক বলেন,কংকরগুলো কাজের জন্য উপাদান হিসেবে আনা হয়েছে। অতর্কিত অবস্থায় এনে ফেলায় জায়গা না পাওয়ায় ড্রাইভার ওখানেই ঢেলে রেখে চলে গেছে। শ্রমিকদের দিয়ে রাতের মধ্যেই এই কংকর সরিয়ে ফেলা হবে।
স্থানীয় চেয়ারম্যান এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন,”কাজটি সামাজিক হয়নি। এর ফলে সড়কে যানযটের পাশাপাশি পথচারীরাও দুর্ভোগে পড়ছে। এতে জড়িত সংশ্লিষ্টদের অতি দ্রুত এই মালামাল সরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ জানানো হল।