কাশ্মীর সমস্যার শেষ দেখে নেয়ার হুঁশিয়ারি ইমরানের

প্রকাশ: ২৭ আগস্ট, ২০১৯ ১২:৫১ : অপরাহ্ন

 

ভারত-পাকিস্তান চাইলেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হবে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে এই ইস্যুতে মধ্যস্থতার আগ্রহও প্রকাশ করেন তিনি। তবে কাশ্মীর নিয়ে কোনো মধ্যস্থতা ভারত মেনে নেবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিকে, কাশ্মীর সমস্যার শেষ দেখার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

 

প্যারিসে চলমান জি-সেভেন সম্মেলনের ফাঁকে সোমবার এক বৈঠকে মিলিত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দেন ট্রাম্প। বলেন, অঞ্চলটিকে ঘিরে যে বিরোধের সৃষ্টি হয়েছে, তা ভারত-পাকিস্তানকেই মেটাতে হবে।
ট্রাম্প বলেন, কাশ্মীর নিয়ে আমরা কথা বলেছি। এমনকি বিষয়টি নিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও আমার কথা হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি তারা চাইলেই সব সম্ভব।
এ সময় কাশ্মীর ইস্যুকে ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপক্ষীয় বিষয় উল্লেখ করে মোদি বলেন, তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়াই দুই দেশ নিজেদের সমস্যা মিটিয়ে নিতে পারবে।
মোদি বলেন, আমাদের অনেক দ্বিপক্ষীয় বিষয় আছে। তা নিয়ে আমরা নতুন করে অন্য দেশকে ঝামেলায় ফেলতে চাই না। আমরা নিজেরাই এসবের সমাধান খুঁজে বের করবো।
এদিকে, জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে কাশ্মীর সঙ্কট সমাধানে আলোচনার জন্য সব ধরনের চেষ্টার কথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। একই সঙ্গে এর শেষ দেখার কথাও জানান তিনি।
ইমরান বলেন, কাশ্মীর নিয়ে সম্ভাব্য সব কিছুই করবে পাকিস্তান। প্রয়োজন হলে ইস্যুটি জাতিসংঘের সাধারণ সভায় তোলা হবে। এটা নিয়ে বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলোর গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব রয়েছে। কেননা পাকিস্তান ও ভারত দুই দেশই পরমাণু শক্তিধর। যুদ্ধ হলে কেউই এখানে জয়ী হবে না।
এর মধ্যেই, জলপথে পাকিস্তান ভারতে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে সতর্ক করেছেন দেশটির নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিং। আর এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে জইশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি।