কুতুবদিয়া মহিলা কলেজে একাদশ শ্রেণীর নবাগত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন ক্লাস অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ১ জুলাই, ২০১৯ ১১:২৫ : অপরাহ্ন

সংবাদদাতা, কুতুবদিয়া।কুতুবদিয়ায় নারী শিক্ষার প্রসারে আলো ছড়াচ্ছে কুতুবদিয়া মহিলা কলেজ। স্থানীয় কুতুবদিয়া-মহেশখালী আসনের সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিকের আন্তরিক প্রচেষ্টায় স্থানীয় রাজনৈতিক কক্সবাজার জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল চৌধুরী ও শিক্ষাবীদ কক্সবাজার সরকারি কলেজের অধ্যাপক আখতার আলমের হাত ধরে ২০১৫ সালের ২২ জুলাই কুতুবদিয়া মহিলা কলেজ প্রতিষ্টিত হয়।

যার ফলে দ্বীপের গরিব-অসহায় পরিবারের ঝরেপড়া মেয়েরা বিনাখরচে লেখা পড়া করার সুযোগ পেয়েছে। সাংসদের নিজস্ব তহবিল হতে শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতাসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণও পেয়েছে। এই অবদান কুতুবদিয়া-মহেশখালী আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিকের। দ্বীপের শিক্ষা বিস্তারে স্থানীয় সাংসদের এই অবদান কেউ ভুলবে না।

সোমবার (১ জুলাই) সকাল ১০ টায় কুতুবদিয়া মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণির নবাগত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন ক্লাসে এসব কথা বলেন বক্তারা। কলেজের অধ্যক্ষ এফ.এম নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর অধ্যাপক আখতার আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব আওরঙ্গজেব মাতবর।

উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর বলেন, বর্তমান সরকার নারী ও শিক্ষাবান্ধব সরকার। শিক্ষা ও নারীদের সুরক্ষায় সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে আওয়ামীলীগ সরকার। যা অন্য কোন সরকার দিতে পারে নি। তাই বাংলাদেশের জনগন আওয়ামীলীগকে ভোট দিয়ে বারবার নির্বাচিত করে।

আগামী দুই মাসের মধ্যে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিকের মাধ্যমে কুতুবদিয়া মহিলা কলেজের একাডেমিক ভবন উদ্বোধন করার আশ্বাস প্রদান করেন তিনি। পাশাপাশি কুতুবদিয়া মহিলা কলেজের সার্বিক সহযোগিতায় সবসময় থাকবেন বলেও জানান।

কলেজের ইসলাম শিক্ষা প্রভাষক আলিমুল হক চৌধুরীর কোরআন তিলাওয়াত ও বাংলা প্রভাষক মোঃ ওসমান গণির সঞ্চালনায় অনুষ্টিত উদ্বোধনী ক্লাসে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজের অর্থনীতি প্রভাষক মোঃ নজরুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন যুক্তিবিদ্যা প্রভাষক ছাইফুদ্দিন, আইসিটি শিক্ষক আবদুল খালেক, পৌরনীতি শিক্ষক মাহমুদুল করিমসহ অন্যান্য শিক্ষক/শিক্ষিকাবৃন্দ।

জানা যায়, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ঝরেপড়া ৪১ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করা প্রতিষ্ঠানটি ২০১৮ সালে চট্টগ্রাম বোর্ডের অধীনে প্রথম এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

এই কলেজের পরোক্ষ সহযোগিতায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থী কক্সবাজার সরকারি কলেজ স্টাডি সেন্টারের অধীনে বাংলাদেশ উনম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএ/বিএসএস প্রোগ্রামে অধ্যয়নরত। বর্তমানে কলেজটি নিয়মিত ডিগ্রি কোর্স চালুর অপেক্ষায় ।