টেকনাফে পাহাড় ধসে ২ শিশুর মৃত্যু

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:২৪ : অপরাহ্ন

টেকনাফ থেকে সংবাদদাতা।।কক্সবাজারে টেকনাফে ভারী বৃষ্টিপাতে পাহাড় ধসে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। এছাড়া বৃষ্টির পানিতে কয়েক’শ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। মঙ্গলবার ভোরে টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়ার রবিউল আলমের ছেলে মেহেদী হাসান (৯) ও একই এলাকার মোহাম্মদ আলমের শিশু কন্যা আলিফা (৫)।

দুই শিশুর মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত করে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রবিউল হাসান সমকালকে বলেন, ভারী বর্ষণের ফলে টেকনাফ পৌর এলাকায় পাহাড় ধসে দুই শিশু মারা গেছে। ঘটনাস্থল পরির্দশ করেছি, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। নিহত শিশুদের পরিবারকে আর্থিক অনুদান দেওয়া হবে। এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, ভারী বর্ষণে টেকনাফ উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রাম পানি বন্দী হয়ে আছে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে তাদের সাহায্য দেওয়া হবে।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার ভোরে ভারী বৃষ্টিপাতে ভোরে মাটিচাপা পড়ে দুই পরিবারের লোকজন আহত হয়। পরে আশপাশের লোকজন তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্যা কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে সেখানে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক খানে আলম দুই শিশুকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ইয়াছিন আরফাত বলেন, টানা বৃষ্টিতে তার এলাকায় প্রায় অর্ধশতাধিক মানুষ পানিবন্দী রয়েছেন। মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত সরকারের প্রতিনিধি ও জনপ্রতিনিধিরা কেউ তাদের খোজঁ খবর নিতে আসেনি।

টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আলম বলেন, ‘ভারী বৃষ্টিপাতে মাটি চাপা পড়ে দুই শিশু মারা গেছে এবং বৃষ্টির পানিতে বেশ কয়েকটি গ্রামের শত শত মানুষ পানিবন্দী হয়ে আছেন। এলাকায় গিয়ে তাদের খোজঁ খবর নেওয়া হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার থেকে কক্সবাজারে থেমে থেমে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় ১৬৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।