পর্দা উঠলো মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক উৎসবের

প্রকাশ: ১ মার্চ, ২০১৯ ৭:০৮ : অপরাহ্ন

সৌদি আরব প্রতিনিধি।। সৌদি আরবে ঐতিহ্যবাহী মদিনা ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ছাত্রদের অংশগ্রহণে শুরু হয়েছে ৮ম সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “মাহেরজান”। এ উৎসবে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা নিজ দেশের সংস্কৃতি, সামাজিক ঐতিহ্য, লোকশিল্প ও দেশীয় পোশাক প্রদর্শনের আয়োজন করে। প্রায় ১১০টি দেশের শিক্ষার্থীরা উৎসবে অংশগ্রহণ করছে।

মদিনার গভর্নর প্রিন্স ফয়সাল বিন সালমান গতকাল উৎসবের উদ্বোধন করেন।

 

রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মো. ফখরুল ইসলামের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা দেশীয় ঐতিহ্য ও পোশাক দিয়ে বর্ণিল সাজে বাংলাদেশ স্টল’র আয়োজন করে। সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ গতকাল এ উৎসবে যোগ দেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন ও বাংলাদেশ স্টল পরিদর্শন করেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, এ উৎসবে অংশগ্রহনের মাধ্যমে সৌদি আরবে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া সৌদি আরবসহ অন্যান্য মুসলিম দেশগুলোর সাথে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও বৃদ্ধি পাবে।

গোলাম মসীহ বলেন, সম্প্রতি সৌদি আরবের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বাংলাদেশের ছাত্রদের বৃত্তির সংখ্যা, বিভিন্ন বিষয়ে পড়াশোনা ও গবেষণার সুযোগ আগের তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

মদিনা ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতগণ, কূটনৈতিকরা যোগদান করেন।

৯ দিনের এই উৎসব ২৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে চলবে ৯ মার্চ পর্যন্ত।

প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টাএবং বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত শুধুমাত্র ব্যাচেলর এবং মাগরিবের পর থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ফ্যামিলির জন্য উম্মোক্ত থাকবে উৎসবটি।
কোন ধরনের ফি ছাড়াই উপভোগ করা যাবে আন্তর্জাতিক এই সংস্কৃতি উৎসব।

উল্লেখ্য, এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে প্রায় ২০ হাজার বিদেশী শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছে। যার মধ্যে বাংলাদেশী শিক্ষার্থী রয়েছে প্রায় ৪ শত জন।