বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে জেলা চ্যাম্পিয়ন কক্সবাজার পৌরসভা সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:৫৭ : অপরাহ্ন

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে প্রথমবারেরমতো জেলা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে কক্সবাজার পৌরসভা। এছাড়া বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মহেশখালী উপজেলা অনুর্ধ-১৭ প্রমিলা দল। ফলে এবার বিভাগীয় পর্যায়ে খেলবে কক্সবাজার পৌরসভা ও মহেশখালী।
সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪টার দিকে কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে (অনুর্ধ-১৭) বালকদের ফাইনালে মুখোমুখি হয় কক্সবাজার পৌরসভা বনাম কুতুবদিয়া উপজেলা একাদশ। তীব্র উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে কুতুবদিয়াকে ১-০ গোলে হারায় কক্সবাজার পৌরসভা। খেলার শুরু থেকেই শৈল্পিক ফটবলে কুতুবদিয়া উপজেলাকে চাপের মধ্যে রাখে কক্সবাজার পৌরসভার খেলোয়াড়রা। ৫ মিনিটের মধ্যে কক্সবাজার পৌরসভার ফয়সালের দাক্ষণ একটি হেড বারের বাইরে চলে যায়। এতে নষ্ট হয় এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ। পুরো মাঠ জুড়েই ছিল শুধু কক্সবাজার পৌরসভা একাদশের আধিপত্য। ২৩ মিনিটে মোরশেদের একটি মাঠ কাঁপানো শট রুখে দেয় কুতুবদিয়ার গোলরক্ষক।
২৭ মিনিটের মাথায় আক্রমণে যায় কুতুবদিয়া উপজেলা একাদশ। এসময় তাদের স্টাইকাররা সহজ গোল মিস করে। রেফারির বিরতির বাঁশিতে ০-০ গোলে মাঠ ছাড়ে উভয়ই দল।
দ্বিতীয়ার্ধের কিছুটা জ¦লে উঠে গুছিয়ে খেলতে দেখা যায় কুতুবদিয়াকে। এতে কয়েকবার প্রতিপক্ষের গোলবারে হানা দিয়েও ব্যর্থ হয় তারা। কিন্তু পরক্ষণেই নিজেদের শৃঙ্খলায় ফেরান পৌরসভার রক্ষণ ও মধ্যভাগের খেলোয়াড়েরা। ৪৪ ও ৪৮ মিনিটে পরপর দু’টি নিশ্চিত গোল মিস হয় কক্সবাজার পৌরসভার। ওই সময় কায়সার ও রিফাতের দুটি দুর্দান্ত শট ভেস্তে দেয় কুতুবদিয়ার গোল রক্ষক। কুতুবদিয়ার গোল রক্ষক অভির দৃঢ়তায় অনেক বিপদ থেকে রক্ষা পায় দল। সর্বশেষ ৫৭ মিনিটে কুতুবদিয়ার ফিরোজ একটি সহজ গোল মিস করে। এর মিনিট পাঁচেক পর হতাশায় ডুবে কুতুবদিয়া শিবির। এসময় খেলার বয়স চলছিল প্রায় ৬৪ মিনিট। শেষ দিকে দলকে গোল করে এগিয়ে নেয় কক্সবাজার পৌরসভার দক্ষ স্টাইকার রিফাত হোসেন কায়সার। সে কুতুবদিয়ার গোল রক্ষককে বোকা বানিয়ে মাথার উপর দিয়ে আলতো করে বল পাঠিয়ে দেয় জালে। আর এতেই তুমুল উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে কক্সবাজার পৌরসভার খেলোয়াড় ও সমর্থকরা। রেফারির শেষ বাঁশি বাজা পর্যন্ত আর কোন গোল আসেনি। ফলে ১-০ গোলের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়ে কুতুবদিয়া। আর ওই প্রান্তে বিজয়ের জয়গানে মেতে উঠে কক্সবাজার পৌরসভা দলের হাজার হাজার সমর্থক, খেলোয়াড়, কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা।
এর আগে বেলা ২টার দিকে দিনের অপর ম্যাচে বালিকাদের ফাইনালে দুপুর ২টায় কুতুবদিয়া প্রমিলা দলকে ২-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মহেশখালী প্রমিলা দল। খেলা শেষে সংক্ষিপ্ত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। এছাড়া বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজওয়ান আহমদ ও শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অনুপ বড়–য়া অপু।
এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মাসুদুর রহমান মোল্লা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এসএম সরওয়ার ও জেলা ক্রীড়া অফিসার আফাজ উদ্দিনসহ বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও জেলা প্রশাসনের ম্যাজিষ্ট্রেট এবং কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র-কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরে অতিথিরা চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ দলকে ট্রফি তুলে দেন।