মুহুরী পাড়ায় দরিদ্র নারীর উপর সন্ত্রাসী হামলা

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট, ২০১৯ ৩:০৯ : পূর্বাহ্ন

আতিকুর রহমান মানিক
কক্সবাজার শহরতলীর মহুরীপাড়ায় দরিদ্র এক নারীকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে পাহাড় খেকো সন্ত্রাসীরা। ৩০ আগষ্ট (শুক্রবার) সকালে ঝিলংজা ইউনিয়নের বিসিক শিল্পনগরী সংলগ্ন দক্ষিণ মুহুরী পাড়ার হসবা কাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় মুখমন্ডল সহ সারা শরীরে আঘাত প্রাপ্ত আমিনা খাতুন জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা ।
প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, উপরোক্ত এলাকার জসিম উদ্দিন ও নুরুল হকের নেতৃত্বাধীন এক গ্রুপ দীর্ঘদিন ধরে পাহাড় কেটে আসছে। সরকারী পাহাড় খরিদ করেছে মর্মে প্রচার করে পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করে আসছে এরা । এভাবে পাহাড় কাটার ফলে এলাকার বন, প্রকৃতি ও পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হওয়ায় এর প্রতিকার চেয়ে ইতোপূর্বে জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পরিবেশ অধিদপ্তর ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের উপর নিকট ইতোপূর্বে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন আমিনা খাতুন। এসব অভিযোগ বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।
এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার সকালে জসিম উদ্দিন, নুরুল হক, মুন্নী ও ফাতেমা বেগম মিলে আমিনা খাতুনের বসত বাড়ীতে ঢুকে তার উপর চড়াও হয়।
ভিকটিম আমিনা খাতুন জানান হামলাকারীরা তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে এবং পরে লোহার রড, লাঠি ও দা নিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এতে আমিনা খাতুনের মুখমন্ডল, হাত-পা ও সারাশরীরে মারাত্নক জখম হয় এবং এক পর্যায়ে জ্ঞান হারায় আমিনা খাতুন । আমিনা খাতুনের স্বামী হামিদ হোছন জানান, স্ত্রীকে রক্ষা করতে এগিয়ে এলে তার উপরও চড়াও হয় সন্ত্রাসীরা। তাদের বেপরোয়া মারধরে বুক পিঠ ও পায়ের গোড়ালীতে আঘাতপ্রাপ্ত হয় হামিদ হোসেন।
মারধরে গুরুতর আহত স্বামী স্ত্রী বর্তমানে জেলা সদর হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আমিনা খাতুনের অবস্হা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।