সিনেমার প্রচারণায় কোরআনের আয়াত, সমালোচনার ঝড়

প্রকাশ: ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:৪৬ : অপরাহ্ন

দেশের অন্যতম প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া নির্মাণ করছে তাদের নতুন সিনেমা ‘জিন’। সিনেমাটি নিয়ে বেশ ক’দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। প্রকাশ করছে সিনেমার কোনো একটি চরিত্র বা গল্প। প্রচারণার অংশ হিসেবে শুরুতেই তারা বলছে কোরআনের কিছু কথা।

গত ৩১ আগস্ট জাজ তাদের ফেসবুকে ‘জিন’ সিনেমা প্রচারণার প্রথম পোস্টটি শেয়ার করে। পোস্টটি হলো- ‘জিন- ১

‎وَخَلَقَ الْجَانَّ مِن مَّارِجٍ مِّن نَّارٍ

এবং আমি জিনকে সৃষ্টি করেছি ধুম্রহীন অগ্নিশিখা থেকে। আল-কোরআন। সুরা আর রাহমান। আয়াত ১৫।

এ ছাড়াও ইহুদীদের পবিত্র গ্রন্থ যবুর, খ্রিস্টানদের পবিত্র গ্রন্থ ইঞ্জিন বা হিন্দুদের বেদসহ সকল ধর্মগ্রন্থেই জিনের কথা উল্লেখ্য আছে।

কিন্তু আমাদের ‘জিন’ সিনেমাটি ইসলাম ধর্মের আলোকেই তৈরি হচ্ছে। কারণ যার জীবন থেকে এই গল্প নেওয়া হয়েছে- সে মুসলিম। নাম বললেই তাকে আপনারা চিনবেন (সঙ্গত কারণেই তার নাম বলছি না)। একবার আউটডোর শুটিংয়ে গল্প বলতে বলতে সে তার জীবনে জিনের আসরের গল্পটা বলে। তারপর তার মা এর সঙ্গে কথা বলে আরও সত্যতা যাচাই করি এবং আরও তথ্যউপাত্ত নিয়ে জিন গল্প তৈরি করি। যখন তাকে বলি এটা নিয়ে সিনেমা বানাবো। তখন সে রাজি হয়, কিন্তু শর্ত একটাই, তার নাম বলা যাবে না। আমরা বলছি না। আশা করি সে নিজেই সবার কাছে এই কথা বলবে। এখন বলতেই পারে। তার সঙ্গে এখন জিনটা নেই।

আসল গল্পের সঙ্গে- আমরা কিছুটা ফিকশন জুড়ে দিয়েছি, সিনেমাটিকে আরও উপভোগ্য করতে। তবে দুর্বল চিত্তের মানুষের জন্য জিন সিনেমা না দেখাই উত্তম। জিন সিনেমাতে গত ২৮ আগস্ট থেকে কাজ শুরু করেছে সময়ের হার্টথ্রব হ্যান্ডসাম বয় রোশান। সঙ্গে থাকুন। চলবে…’

এরপর গত ২ সেপ্টেম্বর ছবি যুক্ত করে আরও একটি পোস্ট প্রকাশ করে জাজ মাল্টিমিডিয়া।

পোস্টটি এমন- ‘জিন- ২

‎وَمَا خَلَقْتُ الْجِنَّ وَالْإِنسَ إِلَّا لِيَعْبُدُونِ

আমার এবাদত করার জন্যই আমি মানব ও জিন জাতি সৃষ্টি করেছি।

কোরান শরীফ। সূরা আয-যারিয়াত। আয়াত নং- ৫৬।

পৃথিবীতে অপশক্তি বলে কিছু নেই। আছে মানুষ জীবজন্তু, গাছপালা। যা আমরা চোখে দেখতে পারি। আর আছে জিন, যা আমরা দেখতে পারি না, কিন্তু আছে। কোরআন শরিফে জিনের কথা বলা আছে। তাছাড়া তুমি যদি জিন বিশ্বাস না করো, তাহলে তো তুমি মুসলমানই না। কারণ ইসলাম ধর্মের প্রথম কথা হলো ঈমান আনতে হবে। ঈমান হলো এক আল্লাহ এ বিশ্বাস করতে হবে, বিশ্বাস করতে হবে, কোরআন শরীফ আল্লাহ প্রদত্ত একটি নির্ভুল ও পবিত্র গ্রন্থ এবং কোরআনের প্রতিটি কথাই তোমাকে বিশ্বাস করতে হবে। প্রফেসার ইলাহী (“জিন” ছবির গল্প লিখছেন তিনি)।

জিন- সিনেমাতে যুক্ত হয়েছে “মুন” (গহিন বালুচরের নায়িকা)। মুন একজন ভালো অভিনেত্রী সঙ্গে আছে গ্লামার। মুন আপনাদের সবার কাছ থেকে দোয়া চাচ্ছে। সঙ্গে থাকুন। চলবে…’

ছবির প্রচারণায় এমন আরও দুটি পোস্ট (৩ ও ৪ সেপ্টেম্বর) জাজ তাদের ফেসবুকে প্রকাশ করে।

জাজের এমন পোস্টে খেপেছেন অনেকেই। কোরআনের আয়াতের সঙ্গে ছবির প্রচরাণার বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না তারা। বিষয়টি নিয়ে ক’দিন ধরে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা।

আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ ফারুক নামে একজন তাদের এই পোস্টে লিখেছেন, ‘কুরআন অবমাননা করার শামিল। মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতির আঘাত হানার জন্যে এডমিনের ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি।’

স্বপ্নহীন কাব্য লিখেছেন, ‘কোরআন শরীফের আয়াতের সাথে এরকম ছবি মোটেই কাম্য নয়, মাথায় কিছু নিয়ে কাজ করেন, তা না হলে আল্লাহ সেই রোজগারের পথটাও বন্ধ করে দিতে পারে।’

আমান আহমেদ নামে একজন লিখেছেন, ‘আপনারা কোন জায়গায় কি করতে হয় সেটাই জানেন না। সুন্দর করে ইমানের কথা বলে সাথে যুক্ত করে দিলেন এই অর্ধউলঙ্গ ছবি। এর আগেও নুসরাতকে ল্যাংটা করে আল্লাহ মেহেরবান গানে নাচ করিয়ে সমালোচনার জন্ম দিয়েছিলেন।’

আরেকজন লিখেছেন, ‘পবিত্র কোরআন শরীফ এর আয়াত উল্লেখ করে এর নিচে এ ধরনের পোস্ট দেওয়া মোটেও উচিত হয়নি। এ পোস্ট থেকে কোরআন-এর আয়াত সরানোর জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ রইল।’

এইএমন শিশির লিখেছেন, ‘জাজ কি দিন দিন বিকৃত রুচির পরিচয় দিচ্ছে?

পবিত্র কোরআন শরীফের আয়াত ক্যাপশন হিসেবে ব্যবহার করে তার সঙ্গে এরূপ ছবি পোস্ট করে তারা কি প্রমাণ করতে চাচ্ছে? ধিক্কার জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। ছি: জাজ ছি…’

জান্নাত সাথী নামে একজন লিখেছেন, ‘ধর্ম নিয়ে আপনারাও ব্যবসা শুরু করে দিয়েছেন দেখছি। এর আগে অর্ধউলঙ্গ নুসরাতকে দিয়ে আল্লাহ্‌ মেহেরবান গাওয়াইলেন এখন আবার অর্ধনগ্ন মুনকে নিয়ে কুরআনের আয়াত টেনে আনলেন। আয়াত আনলেন ভালো কথা, এই অশ্লীল ছবিটি না এড করলে হতো না? ভাই, ফিল্ম নিয়ে বিজনেস করুন, ধর্ম নিয়ে নয়। অবিলম্বে এই উলঙ্গ ছবি অথবা পবিত্র কোরআনের আয়াত অপসারণের দাবি জানাচ্ছি।’ এমন আরও অসংখ্য নেতিবাচক মন্তব্য পড়ছে জাজের এই পোস্টগুলোতে।

এ বিষয়ে দৈনিক আমাদের সময় অনলাইন-এর পক্ষ থেকে জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলিমউল্লাহ খোকনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে, ‘জিন’ সিনেমার শুটিং সেটে নানান ভুতুড়ে কাণ্ড ঘটে চলেছে বলে জানিয়েছে জাজ। আজ বৃহস্পতিবার এমন একটি পোস্ট তারা ফেসবুকে প্রকাশ করে। অনেকেই বলছে, এটি শুধুমাত্র প্রচারণা পাওয়ার জন্যই প্রকাশ করা।

উল্লেখ্য, ‘জিন’ সিনেমাটি নির্মাণ করছেন নির্মাতা, অভিনেতা নাদের চৌধুরী। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে ছবির দৃশ্যধারণ। এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন সজল, পূজা চেরি, ‘গহীন বালুচর’খ্যাত নায়িকা জান্নাতুন নূর মুন, রোশানসহ অনেকে।

আমাদের সময় অনলাইন।