৩ সিটিতে একক প্রার্থী দেবে ২০ দল

প্রকাশ: ২১ জুন, ২০১৮ ১০:১২ : পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা: আসন্ন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনসহ তিন সিটি নির্বাচনের কর্মপরিকল্পনা ও জোট প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে ২০দলীয় জোটের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বৈঠকে বরিশাল, রাজশাহী এবং সিলেট সিটি নির্বাচনে একক প্রার্থী দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন এই জোট।

বুধবার (২০ জুন) রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সকাল ১১টায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আব্দুল হালিম, জাতীয় পার্টি (জাফর) মহাসচিব মোস্তোফা জামাল হায়দার, বিজেপি চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ, এনডিপি চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা, এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, খেলাফত মজলিশের মহাসচিব ড. আহমেদ আব্দুল কাদের, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তোফা ভুইয়া, জাগপা সভাপতি রেহেনা প্রধান, কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান, বিএমএল সভাপতি এ এইচ এম কামরুজ্জামান খান, লেবার পার্টি (একাংশ) চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, (অপরাংশ) মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদি, ডিএল সাইফুদ্দিন মনি, পিপলস্ লীগ মহাসচিব সৈয়দ মাহবুব হোসেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মুফতি মহিউদ্দিন ইকরাম, ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান আবু তাহের চৌধুরী, ইসলামীক ঐক্যজোট চেয়ারম্যান এডভোকেট এম এ রাকিব।

সভায় বরিশাল, রাজশাহী, সিলেটে জোটের পক্ষ থেকে একক প্রার্থী মনোনয়ন দেবার সিদ্ধান্ত হয়। সে ক্ষেত্রে আগামী ২৭ জুন জোটের আরও একটি বৈঠক হবে।

জোটনেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা প্রদানের জন্য ইউনাইটেড হাসপাতালে চিৎিসার ব্যাবস্থা গ্রহণ ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবি জানানো হয়।

সভায় জাতীয় পার্টি (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক ডেপুটি মেয়র খালেকুজ্জামান চৌধুরীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।

এ সময় মাদক নির্মূলের নামে বিচরবর্হিভূত হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, গাজীপুরসহ চার সিটি নির্বাচনে এককভাবে কাজ করবে ২০ দল। খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে বিএনপির পাশে থাকার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এই আন্দোলন ধীরে ধীরে বেগবান করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।