টেকনাফে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত।

প্রকাশ: ৬ জুলাই, ২০২০ ১০:১৬ : পূর্বাহ্ন

ওমর ফারুক, টেকনাফ।

কক্সবাজারের টেকনাফে প্রতিদিনি বাড়তেছে ইয়াবা মাদক পাচারের নৈরাজ্য।প্রতিদিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হাজার হাজার ইয়াবা জব্দ করতেছে। কিন্তু মাদক পাচার বন্ধ হচ্ছে না।আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরা তাদের স্বার্থমত চেষ্টার পরেও দমন করা যাচ্ছে না এই মাদক পাচার।

এবার,কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলা হোয়াব্রাং এলাকার সীমান্তে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এসময় টেকনাফ বিজিবির হ্নীলা বিওপির নায়েক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস সহ দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা, একটি পিস্তল ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।
নিহতরা হলেন কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মোহাম্মদ শফির পূত্র মোঃ আলম (২৬) ও বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এরশাদ আলীর পুত্র ইয়াছিন।

বিজিবি জানাই,৫ জুলাই রবিবার রাতে ১১ টাই হ্নীলা হোয়াব্রাং নাফনদী সীমান্ত দিয়ে ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হ্নীলা বিওপির একটি দল ঐ স্থানে সতর্ক অবস্থান নেয়। কিছুক্ষণ পর কতিপয় লোক নাফনদী সাঁতরে কিনারে আসতে দেখে বিজিবি তাদের তল্লাশির উদ্দেশ্যে থামার নির্দেশ দিলে তারা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করে। বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে উভয় পক্ষের কয়েক রাউন্ড গুলি বিনিময় হয় এবং মাদক পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ৫০ হাজার ইয়াবা, অস্ত্র ও কার্তুজসহ গুলিবিদ্ধ ২ মাদক পাচারকারীরকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তবয়রত ডাক্তার তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে সেখানে নেওয়ার পর তারা মৃত্যু বরণ করেন।

লাশ ময়না তদন্তের জন্য জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।