মেজর সিনহা হত্যা: কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে পুলিশ কি চাপের মুখে?

প্রকাশ: ১৩ আগস্ট, ২০২০ ১০:২২ : অপরাহ্ন

বাংলাদেশে অনিয়ম, হেফাজতে নিয়ে নির্যাতনসহ নানা অভিযোগে গত ২৪ ঘণ্টায় পুলিশের তিনজন ওসি বা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এরমধ্যে নেত্রকোনার দূর্গারপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান, কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি আবু মো. শাহজাহান কবির এবং বরগুনার বামনা থানার ওসি ইলিয়াস আলী তালুকদারকে আলাদা অভিযোগে প্রত্যাহার করা হয়।

গত শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, নিহত মেজর সিনহার সহযোগী শিপ্রা দেবনাথ এবং সিফাতকে মুক্তি দেয়ার দাবিতে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভে বামনা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক নজরুল ইসলামকে চড় মারেন একই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইলিয়াস আলী তালুকদার।

জানা যায় যে, ওই বিক্ষোভে লাঠিচার্জের নির্দেশ দেয়া হলেও সেটি না করার কারণে সহকর্মীকে চপেটাঘাত করেন ওসি মো. ইলিয়াস আলী তালুকদার।

পরে এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ওই তদন্ত কমিটির প্রধান এবং বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মফিজুল ইসলাম বিবিসি বাংলাকে বলেন, প্রকাশ্যে আরেক পুলিশ কর্মকর্তাকে চপেটাঘাত করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

“তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। তাকে প্রত্যাহার করা এবং তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্তের সুপারিশ করি। সেই সুপারিশের প্রেক্ষিতে তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে,” বলেন মি. ইসলাম।

গত ৩১শে জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান।

ছবির ক্যাপশান,গত ৩১শে জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান।

বাংলাদেশে সম্প্রতি পুলিশের গুলিতে সাবেক এক সেনাসদস্য নিহত হওয়ার পর এ বিষয়ে করা হত্যা মামলায় আসামী করা হয়েছে টেকনাফের ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ লিয়াকতসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাকে।

এ ঘটনার বেশ কয়েক দিন পরেই মঙ্গলবার এমন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হলো।

তবে মানবাধিকার কর্মীরা এই পরিস্থিতিকে কিছুটা ভিন্নভাবে দেখছেন। মেজর সিনহার হত্যার ঘটনায় যে আলোড়ন তৈরি হয়েছে তার কারণে পুলিশ বাহিনী কিছুটা চাপের মুখে পড়েছে বলে মনে করেন অধিকার কর্মীরা।

তারা বলছেন, দেশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে যখন বড় কোন ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে, নানা ধরণের সমালোচনা তৈরি হয়, তখন সেই পরিস্থিতি থেকে বের হতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়।

সূত্রঃ বিবিসি।