হাঁড়কাপানো শীত আর শৈত প্রবাহে জবু থবু ঈদগাঁওবাসী

প্রকাশ: ১৩ জানুয়ারী, ২০২০ ১০:৫৯ : পূর্বাহ্ন

এম আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও

হাড় কাঁপানো শীত আর ঘন কুয়াশায় চাদরে ঢাকা পড়েছে ঈদগাঁওর জন জীবন। সেই সঙ্গে শৈত্য প্রবাহ বইছে সব খানেই। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের দেখা মিলছেনা। কুয়াশার মোড়ানো চার পাশ। ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। কুয়াশা কারণে সড়ক দুর্ঘটনার আশংকা করেন চালকরা। কনকনে ঠাণ্ডা বাতাসে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে জনজীবন। তীব্র শীতে ঘর থেকে বের হওয়া কষ্টকর হয়ে পড়ে। সব চেয়ে বিপাকে খেটে খাওয়া আর ছিন্নমূল মানুষ। অসহায় ও হতদরিদ্র লোকজনের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। শীত বস্ত্রের অভাবে মানবেতর দিন কাটায়  ছিন্নমূল পরিবারগুলো। তবে কিছু কিছু স্থানে শীতবস্ত্র বিতরন অব্যাহত রয়েছে। প্রচন্ড শীতে প্রভাব পড়েছে বৃদ্ধ ও শিশু দের মধ্যে। খড় কুটোয় আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে অনেকেই। শীতে দুর্ভোগে রয়েছেন দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষ। কদিন ধরে জেলার অন্যান্য স্থানের ন্যায় ঈদগাঁওতেও ঝেঁজে বসছে প্রচন্ড শীত।
এদিকে ঠাণ্ডাজনিত রোগের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। বিভিন্ন শ্বাসতন্ত্রজনিত রোগের পাশাপাশি নিউমেনিয়া,ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে ক্লিনিক, হাসপাতালে বাড়ছে রোগী।বিশেষ করে,শিশু-কিশোরসহ যুবকসহ বৃদ্ধরা সর্দি,জ্বর,গলাব্যথা, কাশি,পেটেরপীড়া,নিউ মোনিয়া,শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে এলাকার লোকজন। বর্তমানে বৃহত্তর ঈদগাঁওর নানা এলাকায় প্রায় ঘরে এমন রোগী রয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে কিশোর-বৃদ্ধসহ সব শ্রেণির মানুষই রয়েছে। শিশু ও বৃদ্ধরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। ঈদগাঁও বাজারস্থ স্বাস্থ্য কল্যান কেন্দ্র,হাসপাতাল,ক্লিনিকসহ গ্রাম্য চিকিৎসা কেন্দ্রে এসব রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।শামসু সহ কজন রোগী জানান,দিনের চেয়ে রাতে ঝেকেঁ পড়ছে শীত। প্রত্যেক ঘরেই শিশু-যুবক, বৃদ্ধসহ কেউ না কেউ সর্দি জ্বরে ভুগছেন। এসব রোগে ভোগে কদিন ধরে অসহ্য যন্ত্রনা লাগে। অন্য সময়ের চেয়ে বর্তমান সময়টা ব্যতি ক্রমী। বর্তমান সময়ে আবহাওয়া টা অনেকটা ধাঁধাঁর মতো গরম আর ঠান্ডাভাব। ভোরে ঠান্ডা ও লাগে। সর্দি, কাশিসহ আরও কিছু শারীরিক সমস্যার সৃষ্টি হয়।
উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার  ডা: মো: আবুল বশর জানান,শীতকালীন রোগ ছাড়া তেমন কোন বড় ধরনের রোগব্যাধি দেখা যাচ্ছেনা।
ঈদগাঁও মড়েল হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা: মো: ইউসুফ আলী জানান, আবহাওয়া পরিবর্তনের ফলে সববয়সী মানুষের মাঝে সর্দি,কাশি,জ্বরসহ নানা রোগ বেড়েই চলছে।