আ’লীগ-বিএনপি ও জামায়াত এক প্যানেলে নির্বাচন

প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারী, ২০২০ ২:৩১ : অপরাহ্ন

মফস্বল  ডেস্ক।

ঢাকা : দীর্ঘ প্রায় ২ যুগের রেকর্ড ভেঙ্গে ভোলা জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের এবছর ব্যতিক্রমী এক নিবার্চন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বর্তমানে ক্ষমতায় আওয়ামীলীগ থাকলেও ভোলা আইনজীবী সমিতির নিবার্চনে আ.লীগ, বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্রার্থীরা সমঝোতার ভিত্তিতে পদ ভাগাভাগি করে এক প্যানেল দিয়ে নির্বাচন করছে। এতে করে বিভিন্ন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

আইনজীবী সূত্র জানায়, এবারের এই নিবার্চনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত আইনজীবী সমিতির সদস্যরা (এড.) মিলে যৌথভাবে প্যানেল দিয়ে নিবার্চন করছেন।

অপর দিকে তাদের বিরুদ্ধে কার্তিক-শাজাহান পরিষদ নামে একটি প্যানেল মনোনয়নপত্র দাখিল করায় আগামী ৩১ জানুয়ারি নিবার্চনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে যাচ্ছে। এ ধরনের ২ প্যানেলে নিবার্চন অনুষ্ঠিত হতে যাওয়ায় ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করছেন সাধারণ মানুষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ঐতিয্যবাহী ভোলা আইনজীবী সমিতি ১৯০৩ সালে গঠিত হয়। এ বছর আসন্ন নিবার্চনে ভোলা আইনজীবী সমিতির নিবার্চনে অংশ নেয়া বাংলাদেশ জিন্দাবাদ স্লোগান দেয়া একটি প্যানেলে সভাপতি পদে এড. আলহাজ্ব মো. সালাউদ্দিন হাওলাদার, সহ-সভাপতির ২টি পদে এড. শংকর গাঙ্গুলী, এড. মো: ইউসুব (১), সাধারণ সম্পাদক পদে এড. আলহাজ্ব মো: নুরুল আমিন নুরনবী, সহ সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন হচ্ছে এড. মো: ইফতারুল হাসান শরীফ ও এড. জাকির হোসেন রিপন, অর্থ সম্পাদক পদে এড. মো: মোতাসিন বিল্লাহ, ধর্ম ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে এড. মো: ইউসুব (২), পাঠাগার সম্পাদক পদে ২জন হচ্ছে এড. মো: মাশফিকুর রহমান বাবু ও এড. পলাশ চন্দ্র দাস, সদস্য পদে ৩ জন হচ্ছে এড. আলহাজ্ব মো: আবুল কাসেম, এড. মো: জাকির হোসেন (২) ও এড. আলহাজ্ব মো: কাওসার আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অপর দিকে ঐতিয্য ভোটাধিকার উন্নয়ন স্লোগান নিয়ে কার্তিক‌-শাজাহান পরিষদ নামে অন্য একটি প্যানেলে সভাপতি পদে এড. কার্তিক চন্দ্র সাহা, সহ সভাপতি পদে ২ জন হচ্ছে এড. উমেশ চন্দ্র মজুমদার, এড. তারেক চন্দ্র দেবনাথ, সাধারণ সম্পাদক পদে এড. আলহাজ্ব মো: শাজাহান,‌ সহ সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন হচ্ছে এড. খারুল ইসলাম ও এড. মহিউদ্দিন হেলাল, অর্থ সম্পাদক পদে সুজন কৃষ্ণ দে, ধর্ম ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে এড. মো: মামুনুর রহমান, পাঠাগার সম্পাদক পদে ২ জন হচ্ছে এড. মিজানুর রহমান খান ও এড. মঞ্জুরুল আলম ( খোকন), সদস্য পদে মোসাম্মৎ জান্নাতুল ফেরদৌস জুবুলি চৌধুরী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বিএনপি ও আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্যানেলের সভাপতি পদ প্রার্থী এড. আলহাজ্ব মো: সালাউদ্দিন হাওলাদার জানান, এবারের নিবার্চনে আইনজীবী সমিতির বৃহত্তর স্বার্থে কোর্টের দুর্নীতি, পুলিশের দুর্নীতি, বারের উন্নয়ন, সরকারের সহযোগীতা প্রয়োজন। সরকার এবং বিরোধী দল যদি একত্র হয়ে আমাদের সমস্যা গুলো সমাধান করা যায়। ব্যাতিক্রম কিছু করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ২ দলের (আ’লীগ বিএনপি) সিনিয়র ৯ জন মিলে বসে একত্রে প্যানেল করার সিদ্ধান্ত হয়। জেনারেল মিটিং এ এই সিদ্ধান্ত হয়।

এদিকে তাদের এই সিদ্ধান্তের কারণে এ বছর আওয়ামীলীগ ও বিএনপি জামায়াত সমর্থিত ২ পক্ষ আলাদা কোন মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি। কিন্তু তাদের এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাখান করেছেন অপর একটি পক্ষ। কার্তিক-শাজাহান পরিষদ প্যানেল দিয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করায় অবশেষে নিবার্চন হচ্ছে।

কার্তিক শাজাহান পরিষদের সভাপতি পদের প্রার্থী এড. কার্তিক চন্দ্র সাহা জানান, জামায়াত বিএনপির সাথে আঁতাত হতে পারে না। কিছু স্বেচ্ছাচারী লোকদের হাত থেকে আইনজীবী সমিতিকে উদ্ধার করতে তারা নিবার্চনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তাদের প্রতিপক্ষ আওয়ামীলীগের ৭ জন এবং বিএনপি-জামায়াতের ৬ জন মিলে তারা প্যানেল করেছে।