সাগরতীরে ‘শেখ রাসেল’ শিশু পার্ক

প্রকাশ: 4 নভেম্বর, 2019 6:39 : অপরাহ্ন

দেশ সংবাদ ।।

কক্সবাজারবাসীরদীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে সাগরতীর কবিতা সত্বর পয়েন্টে নির্মিত হচ্ছে ‘শেখ রাসেল’ শিশুপার্ক। আগামী ১ মাসের মধ্যে শিশুপার্কটির কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে প্রাথমিক কাজ শেষ করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। সাগরতীরের পাশে প্রায় সাড়ে ৬ একর জমিতে পার্কটি তৈরি হবে বলে নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব ও পর্যটন সেল) মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার।

‘আমরা কক্সবাজারবাসী’ সংগঠনের সম্বনয়ক এইচ এম নজরুল ইসলাম পূর্বকোণ অনলাইনকে বলেন, পর্যটক টানতে যেখানে যাবতীয় সব রকমের বিনোদন কেন্দ্র থাকার কথা, সেখানে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে শিশুপার্কই নেই। বছরের পর বছর ধরে ঘুরছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত পাড়ের শহরটিতে শিশুপার্কের প্রকল্প। ঘুরছে আশ্বাস আর ঘোষণায়। আর শিশুপার্ক না থাকার মতো ‘বড় ব্যর্থতার’ খেসারতও দিতে হচ্ছে কক্সবাজারকে। বিশ্বের অন্য সৈকত নগরীগুলোর সঙ্গে দৌঁড়ে ক্রমেই পিছিয়ে পড়তে হচ্ছে দেশের প্রধান পর্যটন কেন্দ্রকে। বিভিন্ন সময় কক্সবাজারে শিশুপার্ক নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হলেও তা আলোর মুখ দেখেনি। কখনো জমির অভাব, কখনো অর্থাভাবে পথ হারিয়েছে শিশুপার্ক নির্মাণ প্রকল্প। কখনোবা লাল ফিতায় বন্দী ফাইলেই থমকে গেছে শিশুপার্ক নির্মাণ। কিন্তু এখন আশার বানী শুনা যাচ্ছে। আগামী ১ মাসের মধ্যে শিশুপার্ক নির্মাণ দৃশ্যমান হওয়ার কথা বলছে জেলা প্রশাসন। যদি তা হয় তাহলে এটি প্রশাসনের একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে। কারণ কক্সবাজারে কোন শিশুপার্ক নেই। এটি হবে পর্যটন নগরীর প্রথম শিশুপার্ক। শহরের বাহারছড়া এলাকার বাসিন্দা ‘আমরা কক্সবাজারবাসী’ সংগঠনের অন্যতম নেতা নাজিম উদ্দিন বলেন, অতীত সময়কাল থেকেই কক্সবাজার জেলাবাসী প্রায়ই দাবি করে আসছিল শিশুপার্ক নির্মাণের।

পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের কারণে কক্সবাজার বিশ্বময় পরিচিতি লাভ করেছে। ফলে প্রতিবছরই এখানে আসে দেশ-বিদেশ থেকে অসংখ্য পর্যটক। স্থানীয়দের পাশাপাশি পর্যটকদেরও দাবি কক্সবাজারে একটি শিশুপার্ক নির্মিত হোক। বিভিন্ন সময়ে জেলা প্রশাসন থেকে শিশুপার্ক নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হলেও জায়গা চিহ্নিত না হওয়ার কারণে এতদিন সে উদ্যোগ সফল হয় নাই। অবশেষে পূরণ হলো জেলাবাসীর প্রাণের দাবি। অন্যদিকে চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল শহীদ দৌলত ময়দানে অনুষ্ঠিত শিশুমেলায় উপস্থিত শিশুদের দাবির প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেছিলেন শীঘ্রই কক্সবাজারে শিশুপার্ক নির্মাণ করা হবে। সেই আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি উদ্যোগে নির্মাণ করা হচ্ছে শিশুপার্ক। ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসক শিশুপার্কের সাইনবোর্ড স্থাপনের মাধ্যমে কার্যক্রমের সূচনা করা হয়।

জানা গেছে, জেলা প্রশাসন ও শিশুপার্ক বাস্তবায়ন নাগরিক কমিটির উদ্যোগে কবিতা চত্বর ও বিয়াম স্কুলের মাঝামাঝি সৈকত সংলগ্ন সাগে ৬ একর জায়গা জুড়ে নির্মান করা হবে পর্যটন নগরীর প্রথম শিশুপার্ক। এর অবকাঠামো নির্মানের কাজও দ্রুত শুরু হবে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এডিসি মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার বলেন, সমুদ্র সৈকতসহ পুরো কক্সবাজার সাজাতে সবার সহযোগিতা দরকার। যত দ্রত সম্ভব এই সাজানের কাজে করা হবে। এর অংশ হিসেবে আগামী ১ মাসের মধ্যে শিশুপার্ক স্থাপনের কাজ দৃশ্যমান হবে। ইতোমধ্যে প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে। পার্কের চারপাশে সীমানার পিলারও স্থাপন করা হয়েছে। কক্সবাজারবাসীর ফুসফুস হিসেবে থাকে এই শিশুপার্কটিও।