আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহার শুরু

প্রকাশ: ১০ মার্চ, ২০২০ ৭:২৭ : অপরাহ্ন

বহির্বিশ্ব।

তালিবানের সঙ্গে চুক্তির অংশ হিসেবে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার দেশটিতে মার্কিন সেনাবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল লেগেট এক বিবৃতিতে সেনা প্রত্যাহার শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন। চুক্তি অনুসারে, ১৩৫ দিনের মধ্যে আফগানিস্তানে মোতায়েনরত ১২ হাজার থেকে ৮ হাজার ৬০০ সেনা প্রত্যাহার করে নেবে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের ন্যাটো মিত্ররা। গত ২৯শে ফেব্রুয়ারি দুই পক্ষের মধ্যে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আফগান সরকার এ চুক্তির কোনো অংশীদার নয়। তবে প্রত্যাশা করা হচ্ছে শিগগিরই তারা তালিবানের সঙ্গে আলোচনায় বসবে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

তালিবান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার চুক্তিটির একটি শর্ত ছিল যে, এর আওতায় তালিবানের সঙ্গে বন্দি বিনিময়ের আলোচনায় বসবে আফগান সরকার।

কিন্তু সেটি স্বাক্ষরের পর আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি জানিয়েছিলেন, তিনি ওই চুক্তি মানবেন না। সোমবার তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। এদিন স্থানীয় গণমাধ্যমে খবর বের হয়েছে যে, নিজের অবস্থান পাল্টেছেন ঘানি। চলতি সপ্তাহেই অন্তত ১০০০ তালিবান বন্দিকে মুক্ত করে দিতে নির্দেশ জারি করবেন তিনি।

চুক্তির শর্ত অনুসারে, আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেবে যুক্তরাষ্ট্র। এর পরিবর্তে,  আফগানিস্তানে অন্যকোনো চরমপন্থি গোষ্ঠীকে আশ্রয় দেবে না তালিবান। সোমবার মার্কিন সেনা প্রত্যাহার শুরুর ঘোষণার পর লড়াই প্রশমনের আহ্বান জানিয়েছে তালিবান। প্রসঙ্গত, চুক্তি অনুসারে দুই পক্ষের মধ্যে লড়াই বন্ধ থাকার কথা থাকলেও, গত সপ্তাহে হেলমান্ড প্রদেশে আফগান সেনাদের ওপর হামলা চালায় তালিবান। তাদের প্রতিহত করতে সেখানে বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র।