নোট-গাইডের সঙ্গে জড়িতদের ব্যাপারে অনলাইনে তথ্য চেয়েছে মন্ত্রণালয়

প্রকাশ: ২৬ মার্চ, ২০২০ ১১:২৯ : অপরাহ্ন

শিক্ষা ডেস্ক।

প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত বেআইনিভাবে গাইড, নোট বই ও শিক্ষা সহায়িকা পড়ানো বা বিক্রিতে জড়িত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের তথ্য প্রমাণসহ অনলাইনে অভিযোগ দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এ ধরনের বই ব্যবহার থেকে বিরত থাকারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন স্বাক্ষরিত এক পরিপত্রে এসব নির্দেশনা জারি করা হয়।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকার কর্তৃক ১ম হতে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যপুস্তকের বাইরে সব ধরনের গাইড/নোট বই/শিক্ষা সহায়িকা ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরপরও প্রাথমিক শ্রেণির জন্য রচিত ও প্রকাশিত বিভিন্ন গাইড/নোট বই/শিক্ষা সহায়িকা বাজারে পাওয়া  যাচ্ছে এবং মাঠ পর্যায়ের কিছু কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের দ্বারা ছাত্র-ছাত্রীদের তা ব্যবহারে বাধ্য করার অভিযোগ রয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নোট ও গাইড বই পড়া থেকে বিরত থাকতে বিশেষ অনুরোধ করা হলো।

পরিপত্রে অনলাইনে অভিযোগ দাখিল বিষয়ে বলা হয়, এসব কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত শিক্ষক ও শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠোর আইননানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। যদি  কোনো কর্মকর্তা/শিক্ষক/ ব্যক্তি/ প্রতিষ্ঠান এরূপ কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে প্রমাণসহ অনলাইনে (www.grs.gov.bd) অভিযোগ দাখিলের জন্য অনুরোধ করা হলো।